অ্যালিস ইন ওয়ান্ডারল্যান্ড সিন্ড্রোম: রূপকথার চরিত্র যখন অসুখ

১৮৬৫ সালে প্রথম প্রকাশিত হয় লুইস ক্যারলের কালজয়ী ভিক্টোরিয়ান ক্লাসিক ‘অ্যালিস ইন ওয়ান্ডারল্যান্ড’। শিশুসাহিত্য হলেও এটি এতোটাই জনপ্রিয় হয় যে শিশুদের পাশাপাশাই তরুণ ও বৃদ্ধরাও এটি পছন্দ করতে শুরু করে। বইটির প্রধান চরিত্র অ্যালিসের কার্যকলাপ নিয়ে এমনি এক বিরল মানসিক ব্যাধি বা সিন্ড্রোম রয়েছে যার নামকরণ করা হয়েছে অ্যালিস ইন ওয়ান্ডারল্যান্ড সিন্ড্রোম নামে। অ্যালিস ইন ওয়ান্ডারল্যান্ড সিন্ড্রোম নাম ছাড়াও এটি এআইডব্লিউএস, টডস সিনড্রোম বা ডিসমেট্রোপসিয়া নামেও পরিচিত।

0 Comments

মারি অঁতোয়ানেত সিন্ড্রোম: যে রোগে রাতারাতি চুলের রঙ সাদা হয়ে যায়

এই বিরল ও অদ্ভুতুরে রোগটির নামকরণ করা হয়েছে ফরাসি রাণী মারি অঁতোয়ানেতের নামানুসারে। রাণীর চুল অতিরিক্ত মানসিক দুশ্চিন্তার ফলে রাতারাতি সাদা রঙে পরিবর্তিত হয়ে গিয়েছিল। এমনকি ইতিহাস গভেষকরাও এই হঠাৎ পরীবর্তের জন্য চরম মানসিক ধাক্কা, শোক এবং যন্ত্রণাকেই দায়ী করেন।

0 Comments
Read more about the article প্লেগ রোগ নিরাময়ের জন্য স্যার আইজাক নিউটনের আবিষ্কৃত উদ্ভট ভেকসিন
একজন প্লেগ ডাক্তার ও স্যার আইজ্যাক নিউটন কে নিয়ে ১৬৮৮ সালে আঁকা ছবি। Image Credit: Wikimedia commons

প্লেগ রোগ নিরাময়ের জন্য স্যার আইজাক নিউটনের আবিষ্কৃত উদ্ভট ভেকসিন

নিউটনের সময়ে (১৬৬৫-১৬৬৬) সালে ইংল্যান্ডে প্লেগ রোগ আঘাত হানার পর, ইংল্যান্ডের বেশিরভাগ লোক নিজেদের বাড়ির সদর দরজা বন্ধ রাখতো। আর যদি কোনো বাড়িতে কোনো ব্যাক্তি প্লেগ রোগের সংক্রমণের শিকার হতো তাদের বাড়ির দরজায় লাল রঙের ক্রস এঁকে দেওয়া হতো।

0 Comments

কাক যখন সিআইএ এজেন্ট!

এক সুউচ্চ টাওয়ারের উঁচু এক তলায় বিলাসবহুল এপার্টমেন্টে কয়েকজন ব্যক্তি বসে আছেন। গোপন মিটিং করছেন তারা। মিটিংয়ের বিষয় অত্যন্ত স্পর্শকাতর। তাই মিটিং স্থলের চারপাশে কড়া নিরাপত্তা। মিটিংটা শুরু হবার আগেও চারপাশ ভালোভাবে খুঁজে দেখা হয়েছিলো, কোনো প্রকার গোপন ডিভাইস লাগানো আছে কিনা রুমে।

0 Comments

মানব ইতিহাসের প্রথম ‘কনজয়েন্ড টুইন’ চ্যাং ও ইং বেঁচে ছিলেন ৬৩ বছর: জন্ম দিয়েছেন ২১ জন সন্তান!

চ্যাং বাঙ্কার এবং ইং বাঙ্কার জন্মেছিলেন ১৮১১ সালে মেকলং, সিয়াম (জায়গাটির বর্তমানে থাইল্যান্ডের ব্যাংকক শহরের অংশ)। তাদের বাবা ছিলেন জাতিগতভাবে একজন চীনা এবং পেশায় তিনি ছিলেন একজন জেলে। তাদের দুজন…

0 Comments

মাথা ছাড়াই ১.৫ বছর জীবিত ছিলো মুরগীটি

১০ সেপ্টেম্বর ১৯৪৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো অঙ্গরাজ্যের ফ্লুইটা শহরের একজন মুরগির খামারি ‘মাইক’ নামের এই মুরগী টির মাথা কেটে ফেলার পরেও মুরগী টি ১ বছর ৬ মাস বেঁচে ছিল।

0 Comments

নিকোলা টেসলার আবিষ্কার: আলোর মুখ দেখতে না পাওয়া ৬ টি আবিষ্কার

১৯০১ সালে টেসলা টেসলা লং আইল্যান্ডের উত্তর তীরে একটি ১৮৫ ফুট লম্বা, মাশরুম আকৃতির টাওয়ার নির্মাণের জন্য আমেরিকান অর্থলগ্নিকারী জেপি মরগানের থেকে ১,৫০,০০০ মার্কিন ডলার নেন। তার লক্ষ ছিলো বাতাসের মাধ্যমে পুরো শহরে বিদ্যুৎ সেবা দেওয়া। কিন্তু এই টাওয়ারের অর্ধেক কাজ চলার সময় মর্গান অর্থ দেওয়া বন্ধ করে দেন।

0 Comments

রক্ত সম্পর্কে ১০ টি চমৎকার তথ্য

মশা আমাদের রক্তের গ্রাণ নিতে পারে। বেশ কিছু বৈজ্ঞানিক গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে মশারা O গ্রুপের ব্লাড গ্রুপ কে মশারা অন্যান্য গ্রুপের ব্লাড গ্রুপের তুলনায় দ্বিগুণ বেশি পছন্দ করে।

0 Comments

নারীর আবিষ্কার: পৃথিবী বদলে দেয়া নারীদের ৫ আবিষ্কার

নায়িকা হেডি লামারকে একসময় হলিউড ‘পৃথিবীর সেরা সুন্দরী’ আখ্যা দিয়েছিল। কিন্তু তিনি ঠিক হলিউডি নায়িকার ছকে বাঁধা ছিলেন না- মদ খেতেন না, পার্টিতে যেতেন না। এখন বিজ্ঞানের জগতে হেডি লামারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান হিসেবে স্বীকৃত হয় ‘স্প্রেড স্পেকট্রাম রেডিও’ যা আজকের জিপিএস, ব্লুটুথ, ওয়াই-ফাই, সিডিএমএ প্রযুক্তিকে সমৃদ্ধ করেছে।

0 Comments

বাঘ ও সিংহের মধ্যকার লড়াইয়ে কে জিতবে?

সমীক্ষায় দেখা যায় বাঘ ও সিংহের মধ্যে লড়াইয়ে সিংহের জয়ের অনুপাত ১ঃ২৫! অর্থাৎ ২৫ টি লড়াইয়ে মধ্যে সিংহ মাত্র ১ টি তে জয় লাভ করে, বাকি সবগুলো জিতে বাঘ!

0 Comments

ববি ডানবার: ভুল পরিচয়ে সারাজীবন কাটানো এক হতভাগা

আমেরিকার লুসিয়ানায় ১৯১২ সালে ৪ বছরের ‘ববি ডানবার’ নামের একটি বাচ্চা ছেলে তার পরিবারের সাথে মাছ ধরতে গিয়ে হারিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পর দীর্ঘ ৮ মাস পর পরিবার টি তাদের সন্তান কে ফিরে পায়। ১৯৬৬ সালে নাতি-নাতনী রেখে মারা যায় ছেলেটি। ২০০৪ সালে তার নাতনীর উদ্যোগে ডিএনএ টেস্ট করে দেখা যায় তিনি ববি ছিলেন না এমনকি তার সঙ্গে ববির বংশের কোনো সম্পর্ক নেই!

0 Comments

জার্মান নাৎসি বাহিনীর অমানবিক ও নৃশংস মেডিকেল এক্সপেরিমেন্ট

ট্যাবলেটটি আসলেই কাজ করছে কিনা সেটি বোঝার জন্য প্রথমেই বন্দীকে সেটি খাওয়ানো হতো। এরপর সরাসরি গুলি করা হতো তার বুক কিংবা ঘাড়ে! পরবর্তীতে চেতনানাশক প্রয়োগ না করেই দুর্ভাগা সেই বন্দীদের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ কেটে নেয়া হতো। পরবর্তীতে এদের বেশিরভাগই বন্দী সংক্রমণে মারা গেছে।

2 Comments

দুই মাথা নিয়ে জন্মানো শিশু: চিকিৎসা বিজ্ঞানে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে জটিল কেস

জন্মের সময় ছেলেটির মাকে জন্মদানে সাহায্য করা ধাত্রী ছেলেটির চেহেরা দেখে মারাত্মক ভাবে আতঙ্কিত হয়ে যায়। ভয়ে তিনি তার পাশে থাকা আগুনের উপর নবজাতক শিশুটিকে ফেলে দেন।

0 Comments

কারেকশন ফ্লুইড: ভুল থেকে আবিষ্কার হয়েছিল

পেন্সিলে লেখার সুবিধা হলো ভুল করলেই সেটা ইরেজার দিয়ে মুছে ফেলা যায়। কিন্তু কলমে এই সুবিধাটা নেই। সরাসরি ভুল হওয়া অংশটাই কেটে দিতে হয়। সেই ভুলটা যদি অফিসিয়াল কোনো দরকারি কাগজে হয় কিংবা কোনো অ্যাসাইনমেন্টে, তাহলে আবার ঝামেলা।

0 Comments

রাশিয়ান স্লিপ এক্সপেরিমেন্ট: ঘুম নিয়ে বন্দীদের উপর চালানো রাশিয়ানদের নিষ্ঠুর পরীক্ষা নিরীক্ষা

ঘটনাস্থল ১৯৪০ সালের রাশিয়ায়,দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ তখন চলছে পুরোদমে। সেই সময়েই দেশের শত্রু হিসেবে চিহ্নিত ৫ বন্দির উপরে এক অদ্ভুত পরীক্ষা চালান রাশিয়ার বিজ্ঞানীরা। তাদের লক্ষ্য ছিল এমন একটি গ্যাস আবিষ্কার করা, যা মানুষের শরীর থেকে ঘুমের প্রয়োজনকে দূরীভূত করবে।

0 Comments