পেলে: বস্তি থেকে ফুটবল সম্রাট হওয়ার গল্প

১৯৫০ বিশ্বকাপের সময় পেলের বয়স তখন ১০ বছর। তখন ফুটবল বিশ্বকাপ হতো লীগের মতো করে ব্রাজিল নিজেদের শেষ ম্যাচটা উরুগুয়ের সাথে ড্র করলেই হয়ে যেতো বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। কিন্তু গিগিয়া যখন শেষ গেলটা করে উরুগুয়ে কে জিতিয়ে দেন সেদিন আবেগপ্রবণ ব্রাজিল সমর্থকদের বহু দর্শক মারাকানার স্টেডিয়ামের ছাঁদ থেকে লাফ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তার মধ্যে ১৬ জন মারা যায়। পুরো ব্রাজিল তখন শোখে আচ্ছন্ন। সেদিন নিজের বাসায় বসেই কাঁদছিলেন পেলের বাবা দোনদিনহো। তখন তার ১০ বছর বয়সের ছেলে পেলে বলেছিলেন, কেঁদো না, আমি বিশ্বকাপ নিয়ে আসব। 

1 Comment

এডমন্ড স্পেনসার: তিনি কবিদের কবি

কবি শৈশবে শিক্ষালাভ করেছেন লন্ডনের মার্চেন্ট টেলার্স স্কুলে এবং কেম্ব্রিজের প্রেমব্রোক হলে। ১৫৬৯ খ্রিস্টাব্দে প্রমকে হল থেকেই তিনি ম্যাট্রিক পাস করন এবং ১৫৭৬ খ্রিস্টাব্দে সেখান থেকেই তিনি এম এ ডিগ্রি লাভ করেন। ছাত্রাবস্থায় তাকে দারিদ্র্যের মধ্যে অতিবাহিত করতে হয়। প্রেমব্রোক কলেজে ঝাড়ুদার ও চাকরের কাজ তাকে করতে হতো। বিনিময়ে পেতেন খাদ্য ও আশ্রয়।

0 Comments

গিউলিয়া তোফানা: মেকাপে বিষ দিয়ে ৬০০ পুরুষকে হত্যা করেছিলেন

গিউলিয়া তোফানা আনুমানিক ১৬২০ সালে জন্মগ্রহণ করেন। মৃত্যুবরণ করেন ১৬৫৯ সালে। যার তৈরিকৃত বিষে মারা গেছেন অন্তত ৬০০ জনের মত। গিউলিয়া তোফানা বিষ প্রয়োগে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে একটি নিদিষ্ট শ্রেণীর মানুষ কে হত্যা করতেন। তিনি তাদের ই হত্যা করতেন যাদের বেঁচে থাকার অধিকার নেই মনে করতেন।

0 Comments

ক্লিওপেট্রা: জুলিয়াস সিজার ও মার্ক অ্যান্টনির সাথে ত্রিভুজ প্রেম

রাণী ক্লিওপেট্রা ইতিহাসের সবচেয়ে আলোচিত ও সমালোচিত ব্যক্তিত্ব। তাকে নিয়ে লেখা হয়েছে অসংখ্য কালজয়ী নাটক ও উপন্যাস। সেই…

0 Comments

মানব ইতিহাসের প্রথম ‘কনজয়েন্ড টুইন’ চ্যাং ও ইং বেঁচে ছিলেন ৬৩ বছর: জন্ম দিয়েছেন ২১ জন সন্তান!

চ্যাং বাঙ্কার এবং ইং বাঙ্কার জন্মেছিলেন ১৮১১ সালে মেকলং, সিয়াম (জায়গাটির বর্তমানে থাইল্যান্ডের ব্যাংকক শহরের অংশ)। তাদের বাবা…

1 Comment

ক্রিস্টোফার মার্লো: পাদরি হওয়ার স্বপ্ন দেখে হয়েছিলেন ঘোরতর নাস্তিক

২৯ মে ১৫৯৩ সালে রিচার্ড বেইন্স একটি রিপোর্ট জমা দেন ক্রিস্টোফার মার্লো সম্পর্কে। সেখানে তিনি উল্লেখ করেন, ক্রিস্টোফার মার্লো শুধু নাস্তিকই নন! তিনি যেখানে যান সেখানেই মানুষকে নাস্তিক হতে প্ররোচিত করেন।

1 Comment

গিলেস ডি রাইস: ৮০০ জন নিষ্পাপ শিশুর হত্যাকারী ও একজন সাহসী ফরাসি সৈনিক

তিনি ১৪২৯ সালে ১০০ বছরের যুদ্ধে ফ্রান্সের হয়ে ব্রিটেনের বিপক্ষে যুদ্ধ করেছিলেন, তাও আবার জগদ্বিখ্যাত জোয়ান অফ আর্কের সহযোদ্ধা হয়ে! এতো সম্মানী একজন মানুষ যখন শিশু হত্যাকারী হিসেবে চিহ্নিত হলেন তখন সমগ্র ফান্স ধাক্কা খেয়েছিল।

0 Comments

রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ: রাণী এলিজাবেথের সম্পর্কে ১০ টি অজানা তথ্য

দ্বিতীয় এলিজাবেথের রানী হওয়ার কথাই ছিলো না। সিংহাসনের উত্তরাধিকারী হিসেবে তার অবস্থান ছিলো পিতৃব্য অষ্টম এডওয়ার্ড এবং পিতা ষষ্ঠ জর্জের পরে। কিন্তু রাজপরিবারের একটি ঘটনা সকল সমীকরণ পাল্টে দেয়।

0 Comments

নিকোলা টেসলার আবিষ্কার: আলোর মুখ দেখতে না পাওয়া ৬ টি আবিষ্কার

১৯০১ সালে টেসলা টেসলা লং আইল্যান্ডের উত্তর তীরে একটি ১৮৫ ফুট লম্বা, মাশরুম আকৃতির টাওয়ার নির্মাণের জন্য আমেরিকান অর্থলগ্নিকারী জেপি মরগানের থেকে ১,৫০,০০০ মার্কিন ডলার নেন। তার লক্ষ ছিলো বাতাসের মাধ্যমে পুরো শহরে বিদ্যুৎ সেবা দেওয়া। কিন্তু এই টাওয়ারের অর্ধেক কাজ চলার সময় মর্গান অর্থ দেওয়া বন্ধ করে দেন।

0 Comments
Read more about the article কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জামাই দুর্ভোগ
রবীন্দ্রনাথের সঙ্গে ছেলে রথীন্দ্রনাথ, মেয়ে মাধুরীলতা, মীরা দেবী ও রেনুকা দেবী

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জামাই দুর্ভোগ

জামাতা শরৎকুমার চক্রবর্তীর মোটেও পছন্দ ছিল না যে, শ্বশুর তার বাড়িতে আসেন। জামাইর মনোভাব জেনেও রবীন্দ্রনাথ যেতেন। মেয়ের কাছে গিয়ে বসে থাকতেন। তখন শরৎকুমার চক্রবর্তী টেবিলের ওপর পা তুলে সিগারেট খেয়ে শ্বশুর রবীন্দ্রনাথের প্রতি অপমানকর মন্তব্য করত। আর সে অপমান নীরবে সহ্য করে রবীন্দ্রনাথ দিনের পর দিন মেয়েকে দেখতে যেতেন।

1 Comment

এডগার অ্যালান পো: রহস্য সাহিত্যের জনকের বিষন্ন জীবন

তার লেখা গল্প, উপন্যাস এবং কবিতার মাঝের ভৌতিকতা এবং রহস্যের আবহাওয়া আজও অপ্রতিদ্বন্দ্বী। তাই তো তার নাম শুনলেই প্রথমে মাথায় চলে আসে খুন, রহস্যময় কোনো কাক, জীবন্ত কবর এবং মৃত্যুর পর ফিরে আসা অদ্ভুত কোনো মহিলার ছবি।

0 Comments

ম্যাক্সিম গোর্কি: রুটির দোকানের চাকরি থেকে জগৎবিখ্যাত সাহিত্যিক

দরিদ্রতা পেশকভের পিছু ছাড়েনি। এক পর্যায়ে তিনি কাজ নেন একটি রুটির কারখানায়। সেখানে সন্ধ্যা থেকে পরদিন দুপুর পর্যন্ত একটানা কাজ করতে হতো। দারিদ্র্যের কষাঘাত আর দিনের পর দিন ঘামঝরা শ্রমের ধকলে মানসিক শক্তি হারিয়ে ফেলেন তিনি। জীবন হয়ে পড়ে তার কাছে অর্থহীন। তিক্ত জীবনের অবসান ঘটাতে পিস্তল কেনেন।

0 Comments

মানসা মুসা: মানব ইতিহাসের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি একজন আফ্রিকান

২০১২ সালে একটি মার্কিন ওয়েবসাইট, সেলিব্রিটি নেট ওর্থ তাঁর মোট সম্পদের মূল্য ৪০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বলে একটি ধারণা দেয়। তবে অর্থনীতির ইতিহাসবিদরা একমত যে সংখ্যা দিয়ে তাঁর সম্পদের কোন সঠিক ধারণা দেয়া একরকম অসম্ভব।

0 Comments

এডওয়ার্ড মর্ড্রেক: দুই মুখ নিয়ে জন্মানো এক হতভাগা

এডওয়ার্ড মর্ড্রেকের সম্পর্কে প্রচলিত ছিল বিভিন্ন অদ্ভুত গল্প। দ্বিতীয় মুখটি মর্ড্রেকের প্রধান মুখের বিপরীত ছিল। শেনা যায় এডওয়ার্ড যখন দুঃখ ও বিষণ্ণতায় কাঁদতেন, দ্বিতীয় মুখটি তখন হাসতে বা উপহাস করতে পছন্দ করত।

0 Comments

হোমার: এক অন্ধ গ্রীক মহাকবি’র আখ্যান

হোমার নামটি একটি গ্রীক শব্দ। যার দুটো অর্থ হতে পারে- অন্ধ ও জিম্মি। এ থেকে ধারণা করা হয় হোমার একজন গ্রীক ক্রীতদাস ছিলেন, যিনি আবার অন্ধও ছিলেন। হোমার অন্ধত্ব নিয়ে অনেক গল্প প্রচলিত আছে, তার মধ্য একটি হচ্ছে কোনো এক শাস্তিস্বরূপ নাকি হোমারের চোখ উপ্রে ফেলা হয়েছিলো। তবে হোমার ঠিক কীভাবে অন্ধ হয়েছেন, তা নিয়ে তেমন কিছু বলতে পারেনি ইতিহাসবিদরা।

0 Comments

বাবা আনুজকা: ইতিহাসের সবচেয়ে বয়স্ক এক নারী সিরিয়াল কিলার

বাবা আনুজকা জন্মেছিলেন ১৮৩৮ সালে তৎকালীন যুগোস্লাভিয়ায় (বর্তমান আধুনিক সার্বিয়ায়)। তিনি ছিলেন একজন দক্ষ অপেশাদার রসায়নবিদ এবং ১৯ শতকের শেষ দিক থেকে বিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে বিষ প্রয়োগ করে প্রায় ১৫০ জন মানুষ হত্যা করেছিলেন।

0 Comments

ইয়ান কিয়ানজাং: দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সাত ঘাটে জল খাওয়া এক কোরিয়ান সৈনিক

১৯৩৮ সালে কোরিয়া তখন জাপান সাম্রাজ্যের অংশ। তখন জাপান সরকার জোর করে১৮ বছর বয়সী ইয়ান কিয়ানজাং কে রাশিয়ার (তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন) বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য নিযুক্ত করে। যুদ্ধে গিয়ে তিনি ১৯৩৯ সালে রীশিয়ানদের হাতে বন্দী হয় এবং রাশিয়া তাকে জার্মানির বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য নিযুক্ত করে। এরপর সে জার্মান নাৎসি বাহিনীর কাছে ধরা পড়লে তারা তাকে পাঠায় আমেরিকার বিরুদ্ধে ডি ডে'তে যুদ্ধ করতে এবং সেখানে গিয়েও সে বন্দী হয় আমেরিকানদের হাতে।

0 Comments

দারিয়া সাল্টিকোভা: ১৩৮ জন মানুষ হত্যা করা এক বিধবা সিরিয়াল কিলার

সাল্টিকোভার যখন ২৬ বছর অর্থাৎ ১৭৫৫ সালে তার স্বামী মারা যান। পুরো রাজ্য ভার চলে আসে তার উপর। ৬০০ জন ক্রিতদাস-দাসী ছিল তার দেখাশুনার জন্য। পাশাপাশি এত বড় রাজ্যের রানী তিনি। এত সব পেয়ে তিনি তখন খুশিতে উন্মাদ প্রায়। হঠাৎই তার আচরণে পরিবর্তন আসে।

0 Comments

ববি ডানবার: ভুল পরিচয়ে সারাজীবন কাটানো এক হতভাগা

আমেরিকার লুসিয়ানায় ১৯১২ সালে ৪ বছরের ‘ববি ডানবার’ নামের একটি বাচ্চা ছেলে তার পরিবারের সাথে মাছ ধরতে গিয়ে হারিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পর দীর্ঘ ৮ মাস পর পরিবার টি তাদের সন্তান কে ফিরে পায়। ১৯৬৬ সালে নাতি-নাতনী রেখে মারা যায় ছেলেটি। ২০০৪ সালে তার নাতনীর উদ্যোগে ডিএনএ টেস্ট করে দেখা যায় তিনি ববি ছিলেন না এমনকি তার সঙ্গে ববির বংশের কোনো সম্পর্ক নেই!

0 Comments

শিবরাম চক্রবর্তী জীবনের শেষদিন পর্যন্ত ক্ষমা করতে পারেননি শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়কে

দেনাপাওনা' উপন্যাসের নাট্যরূপ দিয়েছিলেন শিবরাম। নাম হয়েছিল ‘ষোড়শী'। সকলেই জানে সে কথা। স্বয়ং লেখকও জানেন।

0 Comments

রাধা বিনোদ পাল: আজও যে বাঙালিকে কৃতজ্ঞচিত্তে সম্মান জানায় জাপানিরা

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপানি সেনাবাহিনী অজস্র গণহত্যা, ধর্ষণ ও লুটপাট চালিয়েছিল। গণহত্যার মধ্যে সুক চিং ও নান জিং গণহত্যা ছিল অন্যতম। প্রায় দুই লাখের বেশি নারীকে ধর্ষণ ও যৌনদাসী হিসেবে ব্যবহার করেছিল জাপানি সেনাবাহিনী, যারা পরে 'কমফোর্ট উইমেন' নামে পরিচিতি পায়।

0 Comments

রবার্ট রিপলি: রিপলি’স বিলিভ ইট অর নট! এর স্রষ্টা

রিপলি এবার সংগ্রহ করতে নেমে পড়লে মানুষের অদ্ভুত সব ঘটনা ও তথ্য সংগ্রহ করতে। কিছুদিন পরই রিপলি তার বিখ্যাত ‘বিলিভ ইট অর নট! এর ফিচার বের করেন। এই ফিচার তখন পাঠকদের গ্লোব পত্রিকার প্রতি আগ্রহ মারাত্মক বাড়িয়ে দেয়। প্রথম দিকে এই ফিচারটি কয়েক মাস পর পর বের হতো।

0 Comments

ফ্রানৎস কাফকা: জীবন ছিলো তার ভয় ও আনন্দহীন

বাবার দেয়া মানসিক চাপ থেকে নিস্তার পেতেই কাফকা সাহিত্যে ডুব দিয়েছিলেন। তবে সবজায়গায় ঘুরেফিরে তার বাবা চলে আসতো। কর্তৃত্বপরায়ণ বাবার মূর্তি কাফকার অন্যতম বিখ্যাত দুটো গল্পের মধ্যে দেখা যায় একটি রায় আরেকটি হলো রূপান্তর।

0 Comments

জোসেফ স্তালিনের জীবনের আশ্চর্যজনক কয়েকটি ঘটনা

১৪ বছর বয়সে, স্তালিন ছিল ক্লাসের ফার্স্ট বয় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার জন্য স্কলারশিপও পেয়েছিলো। তার মানে এই নয় যে পড়াশোনা তাকে ঝামেলামুক্ত রেখেছিল। তার এক সহপাঠী স্মৃতিচারনায় লিখেছেন, ‘স্তালিন পড়াশোনায় যেমন সেরা, এবং বদমাশদেরও সেরা।

1 Comment