মহাদেব সাহার বিখ্যাত উক্তি

‘কেউ জানে না একেকটি মানুষ বুকের মধ্যে কী গভীর দীর্ঘশ্বাস নিয়ে বেড়ায় কোনো বিষন্ন ক্যাসেটেও এতো বেদনার সংগ্রহ নেই আর,
এই বুকের মধ্যে দীর্ঘশ্বাসের পর দীর্ঘশ্বাস যেন একখানি অন্তহীন প্রগাঢ় এপিক!’
~মানুষের বুকে এতো দীর্ঘশ্বাস – মহাদেব সাহা

এখনো জীবনে আমি সব দুঃখ ভুলে যাই প্রেমের গৌরবে সব অশ্রু মুছে ফেলি একটি মুখের দিকে চেয়ে, ঘোর দুঃসময় এভাবেই অতিক্রম করি স্নেহেতে মায়াতে বেঁচে থাকি; সব অশ্রু মুছে ফেলি, সব দুঃখ ভুলে যাই। শুধু এই প্রেমের গৌরবে।

একেকটি মানুষ বুকের মধ্যে কী গভীর দীর্ঘশ্বাস বয়ে বেড়ায়,
কেউ জানে না।
একেকটি মানুষ নিজের মধ্যে কীভাবে নিজেই মরে যায়, হায়, কেউ জানে না!

আমার স্মৃতির অববাহিকায় একটি স্বপ্নের প্রিয় নদী তুমি নিরবধি।

কেউ নেই, কড়া নাড়ার মতো কেউ নেই, শুধু শুন্যতার এই দীর্ঘশ্বাস, এই দীর্ঘ পদধ্বনি।

এককোটি বছর হয় তোমাকে দেখি না
একবার তোমকে দেখতে পাবো
এই নিশ্চয়তাটুকু পেলে বিদ্যাসাগরের মত আমিও সাঁতরে পার হবো ভরা দামোদর…

তোমাকে দেখেছি কবে, সেই কবে, কোন বৃহস্পতিবার আর এক কোটি বছর হয় তোমাকে দেখি না।

তোমাকে ছাড়তে গিয়ে আষ্টেপৃষ্ঠে আরো জড়িয়েছি তোমাকে ভুলতে গিয়ে আরো ভালোবেসেছি তোমাকে।

নয়-এর সাথে ছয়-এর যুদ্ধ, সংখ্যালঘু শূলে অংকে খোকার নৌকা চলে স্রোতের প্রতিকূলে চায়ের কাপে সাঁতার কাটা পিঁপড়েটা কী স্বাধীন!

একটা সন্ধ্যাজুড়ে তোমার জন্য প্রেম নামুক খুব। একটা অব্যক্ত চুমুতে, তুমি বদলে দাও সব।

তোমাকে দেখার পর থেকে কীরকম গণ্ডগোল হয়ে গেলো সমস্ত জীবন, ওলটপালট হয়ে গেলো সবকিছু সম্পূর্ণ হারিয়ে ফেললাম বুঝ খেই, চিন্তাসূত্র হয়ে গেলো বিশৃঙ্খল, এলোমেলো;

কবিতার প্রিয় পান্ডুলিপি জুড়ে
হঠাৎ কেমন ধূসর কুয়াশা নেমে আসে,
প্রেমিকার উষ্ণ হাত মনে হয় যেন নিরুত্তাপ, অনুভূতিহীন এ কী শীমপ্রাসাদে আবার জমে বরফের স্তুপ।

আরো পড়ুন   জয় গোস্বামী এর উক্তি: জয় গোস্বামীর কবিতার সবচেয়ে সুন্দর লাইন

তুমি আমার স্নিগ্ধ সজল ভোর
তোমাকে দেই যা কিছু আছে মোর।

আমার কাছে ছিলো তোমার ভালোবাসার নীল অবরোধ তোমার জন্য জয় করেছি একটি যুদ্ধ একটি দেশের স্বাধীনতা!

Leave a Comment