ফিওদর দস্তয়েভস্কি’র উক্তি

ফিওদর দস্তয়েভস্কি লেখক হওয়ার আগে ছিলেন একজন প্রকৌশলী। সে হিসেবে বলা বলা যায় প্রচুর আয় করতেন। কিন্তু তার স্বভাব ছিলো ১০ টাকা আয় করলে ২০ টাকা খরচ করা। যা আয় করতেন তার সব অর্থই উড়িয়েছেন জুয়া খেলে। বলা চলে জুয়া খেলে সর্বশান্ত হয়ে তিনি সাহিত্য রচনায় হাত দিয়েছেন।

চলুন পড়ে নেয়া যাক ফিওদর দস্তয়েভস্কি’র রচনাবলীর কিছু অমূল্য বচন।

১. শত শত সন্দেহ একটা প্রমাণ

২. আমি বিশ্বাস করি মানুষের সেরা সংজ্ঞা হ’ল কৃতজ্ঞ কৃতজ্ঞ।

৩. নরক কী? আমার ধারণা, নরক হলো ভালোবাসতে না পারার যন্ত্রণা।

৪. আপনি বেচে আছেন, অথচ বলার মতো একটা গল্প আপনার নাই, তা কী করে হয়?

৫. কোনো সমাজ কতটা সভ্য তার বিচারের একটা ভালো মাপকাঠি হলো সেই সমাজের কারাগারের অবস্থা।

৬. আপনি যদি অন্যদের কাছে সম্মানিতে হতে চান, সবার আগে নিজেকে সম্মান করুন। নিজেকে সম্মান করার মাধ্যমে আপনি অন্যদের সম্মান করতে প্রভাবিত করেন।

৭. মানব জীবনের একটা রহস্য হলো পুরনো শোক ধীরে ধীরে মৃদু আনন্দ হয়ে ওঠে।

৮. কাপুরুষতার প্রথম লক্ষ্য অন্যের চোখে কেমন লাগবে তা নিয়ে ভাবিত থাকা।

৯. বড় সুখ হলো অ-সুখের উৎসের ব্যাপারে জানা।

১০. অন্যদের সঙ্গে মিথ্যার চেয়ে নিজেদের সঙ্গে মিথ্যা বলার প্রবৃত্তি মানুষের বেশি।

১১. তোমার হৃদয়ের যতটা আমাকে দিতে পারো তার বেশি তো আমি চাইতে পারি না।

১২. কোনো জন্তু কখনও মানুষের মতো এতো শৈল্পিকভাবে, ছবির মতো নিষ্ঠুর হতে পারবে না।

১৩. লোকে সবচেয়ে বেশি ভয় পায় নতুন একটা শব্দ উচ্চারণ করতে, নতুন কোনো পদক্ষেপ নিতে।

১৪. হোক তা ভুল বা ঠিক, মাঝে মধ্যে ভেঙেচুরে ফেলা আনন্দের।

১৫. অন্যদের সঙ্গে মিথ্যার চেয়ে নিজেদের সঙ্গে মিথ্যা বলার প্রবৃত্তি মানুষের বেশি।

আরো পড়ুন   হিটলারের উক্তি | ফ্যাসিবাদ হিটলারের ২০ টি বিখ্যাত উক্তি

Leave a Comment