ইয়ান কিয়ানজাং: দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সাত ঘাটে জল খাওয়া এক কোরিয়ান সৈনিক

১৯৩৮ সালে কোরিয়া তখন জাপান সাম্রাজ্যের অংশ। তখন জাপান সরকার জোর করে১৮ বছর বয়সী ইয়ান কিয়ানজাং কে রাশিয়ার (তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন) বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য নিযুক্ত করে। যুদ্ধে গিয়ে তিনি ১৯৩৯ সালে রীশিয়ানদের হাতে বন্দী হয় এবং রাশিয়া তাকে জার্মানির বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য নিযুক্ত করে। এরপর সে জার্মান নাৎসি বাহিনীর কাছে ধরা পড়লে তারা তাকে পাঠায় আমেরিকার বিরুদ্ধে ডি ডে'তে যুদ্ধ করতে এবং সেখানে গিয়েও সে বন্দী হয় আমেরিকানদের হাতে।

0 Comments

দারিয়া সাল্টিকোভা: ১৩৮ জন মানুষ হত্যা করা এক বিধবা সিরিয়াল কিলার

সাল্টিকোভার যখন ২৬ বছর অর্থাৎ ১৭৫৫ সালে তার স্বামী মারা যান। পুরো রাজ্য ভার চলে আসে তার উপর। ৬০০ জন ক্রিতদাস-দাসী ছিল তার দেখাশুনার জন্য। পাশাপাশি এত বড় রাজ্যের রানী তিনি। এত সব পেয়ে তিনি তখন খুশিতে উন্মাদ প্রায়। হঠাৎই তার আচরণে পরিবর্তন আসে।

0 Comments

প্রাচীন রোমের নৃশংস অত্যাচার

প্রাচীন রোমের অত্যন্ত জনপ্রিয় এক শাস্তিদান প্রথা ছিলো ক্রুশে বিদ্ধ করে একজন অপরাধীকে মেরে ফেলা। তবে সবসময় যে তাকে হাতে-পায়ে পেরেক আটকিয়ে মারা হতো, তা কিন্তু না। বরং একেক জল্লাদ একেক পদ্ধতি অবলম্বন করতো। এখানে যেন তারা প্রতিযোগিতা দিয়ে একে অপরের চেয়ে বেশি সৃজনশীলতা দেখাতে চাইতেন।

0 Comments

ববি ডানবার: ভুল পরিচয়ে সারাজীবন কাটানো এক হতভাগা

আমেরিকার লুসিয়ানায় ১৯১২ সালে ৪ বছরের ‘ববি ডানবার’ নামের একটি বাচ্চা ছেলে তার পরিবারের সাথে মাছ ধরতে গিয়ে হারিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পর দীর্ঘ ৮ মাস পর পরিবার টি তাদের সন্তান কে ফিরে পায়। ১৯৬৬ সালে নাতি-নাতনী রেখে মারা যায় ছেলেটি। ২০০৪ সালে তার নাতনীর উদ্যোগে ডিএনএ টেস্ট করে দেখা যায় তিনি ববি ছিলেন না এমনকি তার সঙ্গে ববির বংশের কোনো সম্পর্ক নেই!

0 Comments

কেমন ছিলো প্রাচীন রোমের মানুষদের জীবন?

প্রাচীন রোম নগরীতে রাস্তায় যাতায়াত করা ছিল এক ঝক্কির ব্যাপার। রোম ছিল দ্রুত বর্ধনশীল নগরী। তাই এ শহরের রাস্তাঘাট ছিল মাকড়সার জালের মতো সর্বত্র এলোমেলোভাবে ছড়ানো। অনেক রাস্তাই কাঁচা ছিল।

0 Comments

সম্রাট পার্টিনাক্স: ক্রীতদাসের সন্তান হয়েও রোম সাম্রাজ্যের সম্রাট হয়েছিলেন

একজন কৃতদাসের সন্তান হয়ে তিনি হয়েছিলেন রোমান সম্রাট! তবে দীর্ঘকাল তার কার্যক্রম স্থায়ী হয় নি। তিনি ৩ মাস সম্রাটের দায়িত্ব পালন করে গেছেন। এবং এই ৩ মাস সময়েই তিনি তার শাসনের একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত সকলের সামনে উপস্থাপন ও করে গেছেন।

0 Comments

জার্মান নাৎসি বাহিনীর অমানবিক ও নৃশংস মেডিকেল এক্সপেরিমেন্ট

ট্যাবলেটটি আসলেই কাজ করছে কিনা সেটি বোঝার জন্য প্রথমেই বন্দীকে সেটি খাওয়ানো হতো। এরপর সরাসরি গুলি করা হতো তার বুক কিংবা ঘাড়ে! পরবর্তীতে চেতনানাশক প্রয়োগ না করেই দুর্ভাগা সেই বন্দীদের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ কেটে নেয়া হতো। পরবর্তীতে এদের বেশিরভাগই বন্দী সংক্রমণে মারা গেছে।

2 Comments

রাধা বিনোদ পাল: আজও যে বাঙালিকে কৃতজ্ঞচিত্তে সম্মান জানায় জাপানিরা

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপানি সেনাবাহিনী অজস্র গণহত্যা, ধর্ষণ ও লুটপাট চালিয়েছিল। গণহত্যার মধ্যে সুক চিং ও নান জিং গণহত্যা ছিল অন্যতম। প্রায় দুই লাখের বেশি নারীকে ধর্ষণ ও যৌনদাসী হিসেবে ব্যবহার করেছিল জাপানি সেনাবাহিনী, যারা পরে 'কমফোর্ট উইমেন' নামে পরিচিতি পায়।

0 Comments

ইতিহাসের সবচেয়ে নিষ্ঠুরতম শাস্তি: বাবা ও ছেলেকে জীবন্ত সিদ্ধ করে মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছে

মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়ে সম্রাট ক্ষান্ত হননি। তিনি ইশিকাওয়া গোয়েমন এর নবজাত ছেলে সন্তানকে একসাথে সেদ্ধ করার আদেশ দেন।

1 Comment

তিনি স্বর্গে যাওয়ার জন্য শিশু হত্যা করেছিলেন

১৭০৪ সালের বসন্তের কোনো এক সকালে অ্যাগনেস ক্যাথরিনা শিকিন নামের এক কিশোরী গ্রামের স্থানীয় এক কৃষকের স্ত্রীর কাছে এক গ্লাস দুধ চেয়েছিল। কৃষকের স্ত্রীর দেয়া দুধ পান করে ক্যাথরিন গ্রাম ছেড়ে যাচ্ছিল। গ্রাম ছেড়ে য়াওয়ার সময় ক্যাথরিন লক্ষ করেন যে চারটি ছেলে খেলাধুলা করছে।

0 Comments

প্রাচীন রোমের নৈশভোজ: নৈশভোজ সম্পর্কে ১০ টি চমকপ্রদ তথ্য

সেই সময়েও মদ ছিল পার্টিতে একটা বড় ব্যাপার স্যাপার। বিশেষ করে যখন সমাজের বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ সেই নৈশভোজে উপস্থিত থাকতেন। মদ ছিল সেসব লোকদের জন্য মর্যাদার প্রতীক।

0 Comments

কারেকশন ফ্লুইড: ভুল থেকে আবিষ্কার হয়েছিল

পেন্সিলে লেখার সুবিধা হলো ভুল করলেই সেটা ইরেজার দিয়ে মুছে ফেলা যায়। কিন্তু কলমে এই সুবিধাটা নেই। সরাসরি ভুল হওয়া অংশটাই কেটে দিতে হয়। সেই ভুলটা যদি অফিসিয়াল কোনো দরকারি কাগজে হয় কিংবা কোনো অ্যাসাইনমেন্টে, তাহলে আবার ঝামেলা।

0 Comments

জোসেফ স্তালিনের জীবনের আশ্চর্যজনক কয়েকটি ঘটনা

১৪ বছর বয়সে, স্তালিন ছিল ক্লাসের ফার্স্ট বয় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার জন্য স্কলারশিপও পেয়েছিলো। তার মানে এই নয় যে পড়াশোনা তাকে ঝামেলামুক্ত রেখেছিল। তার এক সহপাঠী স্মৃতিচারনায় লিখেছেন, ‘স্তালিন পড়াশোনায় যেমন সেরা, এবং বদমাশদেরও সেরা।

1 Comment